এক ছবিতেই পরিষ্কার দুই দেশের করোনা নিয়ন্ত্রণের পার্থক্য!

বিডি7ডে ডেস্ক:  পূর্বঘোষণা অনুসারে অন্তত আগামী ২১ আগস্ট পর্যন্ত বন্ধ থাকার কথা যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা সীমান্ত। তবে এ দুই দেশের মধ্যে এমন একটি জায়গা রয়েছে যেখানে উভয় পক্ষের পর্যটকেরা একদম পাশ ঘেঁষে চালাচল করতে পারেন; সেটি হচ্ছে বিখ্যাত নায়াগ্রা জলপ্রপাত।

সাম্প্রতিক এক ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, এ জলপ্রপাতের পানিতে পাশাপাশি বয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের ‘মেইড অব মিস্ট’ এবং কানাডার ‘হর্নব্লোয়ার নায়াগ্রা ক্রুজ’ পরিচালিত দু’টি নৌযান।

জানা গেছে, মার্কিন নৌযানটিতে যাত্রী ছিল ধারণক্ষমতার ৫০ শতাংশ। কিন্তু করোনা মোকাবিলায় বাড়তি সতর্ক কানাডার নৌযানটি চলছিল ধারণক্ষমতার মাত্র ১৫ শতাংশ যাত্রী নিয়ে।

কানাডীয় এক পর্যটক সাংবাদিকদের বলেন, ‘নৌযান দুটির পার্থক্য দেখলেই বোঝা যাচ্ছে, মহামারি কেন যুক্তরাষ্ট্রে তাণ্ডব চালাচ্ছে আর কানাডায় চালাচ্ছে না।’

jagonews24

মার্কিন ট্যুর কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মেইড অব মিস্ট নিউইয়র্কের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের নির্দেশনা মেনে চলছে। মার্কিন নৌযানগুলোতে সবার মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

৩ কোটি ৭৬ লাখ জনসংখ্যার দেশ কানাডায় এ পর্যন্ত ১ লাখ ১৪ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বিপরীতে, প্রায় ৩৩ কোটি মানুষের দেশ যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪০ লাখের মতো।

বিশ্বের দীর্ঘতম অরক্ষিত সীমান্ত রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার মধ্যে। তবে করোনা মহামারির কারণে গত মার্চ থেকেই অনাবশ্যক যাতায়াত বন্ধ এ সীমান্তে। প্রতি ৩০ দিন পরপর এ সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করছে দুই দেশের সরকার।

সূত্র: সিএনএন